জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৪ অক্টোবর ২০১৭

“বিরোধ হলে শুধু মামলা নয়, লিগ্যাল এইড অফিসে আপোষও হয়”


প্রকাশন তারিখ : 2017-10-24
 “বিরোধ হলে শুধু মামলা নয়, লিগ্যাল এইড অফিসে আপোষও হয়”

সরকারের  আইনি সেবা প্রদানের বিষয়ে ব্যাপকভাবে জনসচেতনতা গড়ে তোলার লক্ষ্যে ২০১৩ সালে মন্ত্রীসভার বৈঠকে ২৮ এপ্রিলকে ‘জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস’ ঘোষণা করা হয় এবং ওই বছর থেকেই ২৮ এপ্রিল জাতীয়ভাবে আইনগত সহায়তা দিবস পালন করা হচ্ছে। এবার এ দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘বিরোধ হলে শুধু মামলা নয়-লিগ্যাল এইড অফিসে আপোষও হয়’।

জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থা ২০০৯ থেকে ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৬৪টি জেলা লিগ্যাল এইড অফিসের মাধ্যমে লাখ ৮৩ হাজার ৬১৯ জনকে মামলায় আর্থিক সহায়তা  এবং ৭২ হাজার ৮৬১টি মামলা নিষ্পত্তি করেছে। কারাগারে আটককৃত ৪৬ হাজার ৭৪৯ জনকে আইনগত সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি বিধিমালা-২০১৫ এর আওতায় জুলাই, ২০১৫ থেকে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ পর্যন্ত ৫৪৯০টি প্রি-কেইস এবং ৮১৭টি পোস্ট-কেইস মামলায় উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে ৪৬২১টি প্রি-কেইস এবং ৬৬৫টি পোস্ট-কেইস মামলা নিষ্পত্তি করা হয়েছে।এই সময়ে মোট= ৫,৪৩,৬৭,৯১৩ (পাঁচ কোটি তেতাল্লিশ লক্ষ সাতষট্টি হাজার নয়শত তের) টাকা এডি.আর. এর মাধ্যমে উপকারভোগীদেরকে  আদায় করে দেওয়া হয়েছে।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অসহায়, দরিদ্র, নির্যাতিত সকল শ্রেণীর মানুষের সর্বোত্তম সহজ পন্থায় আইনি সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে “সরকারি আইনি সেবার মানোন্নয়নে সহায়তা প্রদান” প্রকল্পের আওতায় সরকারি অর্থায়নে ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরে সংস্থার কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সরকারি আইনি সহায়তায় জাতীয় হেল্পলাইন “১৬৪৩০” কলসেন্টার স্থাপন করে। ২৮ এপ্রিল,২০১৬ খ্রিস্টাব্দ তারিখে জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবসে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা “সরকারি আইনি সহায়তায় জাতীয় হেল্পলাইন -১৬৪৩০” এর শুভ উদ্বোধন করেন। এ কলসেন্টার হতে বর্তমানে অফিস চলাকালীন সময়ে “16430” নাম্বারে কল করে (বিনামূল্যে) আইনগত পরামর্শ, তথ্যসেবা ও লিগ্যাল কাউন্সিলিং সেবাসমূহ পাওয়া যাচ্ছে। যা অসহায় মানুষের আইনি অধিকার সুরক্ষায় কার্যকর অবদান রাখছে। জাতীয় হেল্পলাইন কলসেন্টার এর মাধ্যমে ২৮ এপ্রিল, ২০১৬ থেকে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ খ্রি:পর্যন্ত ৫,৯৩৬ জন নারী এবং ১৩,০৬২ জন ‍পুরুষ সহ মোট ১৮,৯৯৮ জনকে আইনগত তথ্য সেবা প্রদান করা হয়েছে।

২০১৫ সালের ৮ ই সেপ্টেম্বর সুপ্রীম কোর্ট্ লিগ্যাল এইড অফিস উদ্বোধন করা হয়। এর পূর্বে শুধুমাত্র জেল আপীল মামলায় আইনগত সহায়তা প্রদান করা হতো।সেপ্টেম্বর, ২০১৭ খ্রিঃ তারিখ পর্য্‌ন্ত সুপ্রীম কোর্টে ২০১৯ জনকে মামলায় সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।উক্ত সময়ে দেওয়ানী আপীল, দেওয়ানী রিভিশন, ফৌজদারী আপীল, ফৌজদারী রিভিশন, রীট, লিভ টু আপীল, জেল আপীল বিষয়ক  ১৭৯৫ টি   মামলা নিষ্পত্তি করা হয়েছে।

জেলা লিগ্যাল এইড অফিস এবং সুপ্রীম কোর্ট্ লিগ্যাল এইড অফিসের মাধ্যমে মোহরানা-খোরপোষ, নাবালকের অভিভাবকত্ব, বিবাহ-বিচ্ছেদ, পারিবারিক কলহ, নারী ও শিশু নির্যাতন, নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা, অপহরণ, ধর্ষন, ভূমি বিরোধ, দলিল জালিয়াতি, ভূল রেকর্ড সংশোধন ইত্যাদি বিষয়ে ২৬,৭০৭ জনকে আইনি পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।

ঢাকা ও চট্টগ্রাম শ্রমিক আইন সহায়তা সেলের মাধ্যমে ২০১৩- সেপ্টেম্বর,২০১৭ খ্রি:পর্যন্ত ৭,৬৯৫ জনকে আইনি সেবা প্রদান করা হয়েছে।এবং ক্ষতিগ্রস্থ শ্রমিকদেরকে ৮১,৫৩,৩৩৭ (একাশি লক্ষ তিপ্পান্ন হাজার তিনশত সাইত্রিশ)টাকা আদায় করে দেয়া হয়েছে।

জেলা লিগ্যাল এইড অফিস, সুপ্রীম কোর্ট্ লিগ্যাল এইড অফিস, শ্রমিক আইন সহায়তা সেল (ঢাকা ও চট্টগ্রাম), জাতীয় হেল্পলাইন কলসেন্টার এর মাধ্যমে সেপ্টেম্বর, ২০১৭ খ্রি:পর্যন্ত মোট লাখ ৬৩ হাজার ১৪১ জনকে সরকারিভাবে আইনি সেবা প্রদান করা হয়েছে।

 

 সূত্র: মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম

কোর্ট অফিসার, জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থা

আইন ও বিচার বিভাগ

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়

১৪৫, নিউ  বেইলী রোড, ঢাকা-১০০০। 


Share with :
Facebook Facebook